করোনাভাইসের কারনে ৬৬ দিন পর খুলছে দেশের সব কিছু

করোনাভাইরাস
ঈদের জামাত পড়ার জন্য মানুষের দীর্ঘ লাইন। মানা হচ্ছেনা সামাজিক দূরত্ব

করোনাভাইরাসের কারনে দীর্ঘ ৬৬ দিন লকডাউনের পর আজ খুলছে দেশের সব সরকারি-বেসরকারি অফিস এবং সেই সাথে সব সরকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও।

সরকারের পক্ষ থেকে সবাইকে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ করা হয়। এমনকি মাস্ক না পরলে আইনের আওতায় আনার ও কথা বলা হয়।

বিভিন্ন অফিস দোকান ফ্যাক্টরি এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান তাদের নিজেদের রক্ষার জন্য বিভিন্ন রকম কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। সব প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামুলক করেছে। কেউ কেউ তাদের কর্মীদের একসাথে না এনে পালাক্রমে আনার চেষ্টা করছে। সেই সাথে কিছু কিছু জায়গায় জীবানুরোধক টানেল তৈরি করতেও দেখা গেছে।

করোনাভাইরাস রোধে পরপর ছয়বার সাধারন ছুটি বাড়ানোর পর আজ ছুটির মেয়াদ শেষ হয় এবং সেই সাথে সব কিছু খুলতে শুরু করেছে।

যদি বাংলাদেশের সব কিছু খুলে দেয়া নিয়ে বেশ বিতর্ক রয়েছে। ৬ মে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা লকডাউন তুলে দেয়ার জন্য ৬ টি পরামর্শ দেন। এসব পরামর্শের মধ্যে রয়েছে জোরদার নজরদারি, রোগীর সংখ্যা কমা ও সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসতে হবে। প্রত্যেক রোগী চিহ্নিত, পৃথক্‌করণ, পরীক্ষা ও চিকিৎসা করা এবং রোগীর সংস্পর্শে আসা সব ব্যক্তিকে শনাক্ত করার সক্ষমতা স্বাস্থ্যব্যবস্থার থাকতে হবে। বাকি চার পরামর্শের মধ্যে রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি পর্যায়ে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার বিষয়।

সেক্ষেত্রে বর্তমানে বাংলাদেশে দেখা যাচ্ছে করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত বেড়েই চলেছে আর ঠিক এই মুহূর্তে সব কিছু খুলে দেয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here